লক্ষ টাকা জরিমানা ; পটিয়ায় এলপি গ্যাসের বিপজ্জনক ক্রস ফিলিং

লক্ষ টাকা জরিমানা ; পটিয়ায় এলপি গ্যাসের বিপজ্জনক ক্রস ফিলিং

পটিয়া সংবাদদাতা : নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার খরনা এলকায় চলছে এলপি গ্যাসের বিপজ্জনক ক্রস ফিলিং ও অবৈধ ব্যবসা।

বিস্ফোরক অধিদপ্তর, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) নিয়ন্ত্রণাধীন এলপি গ্যাস কিংবা বেসরকারি কোনো গ্যাস বিপণন কোম্পানির অনুমোদন ছাড়াই চলছে এই ব্যবসা।

গতকাল বুধবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পটিয়ার খরনায় এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার থেকে ক্রস ফিলিং (এক সিলিন্ডার থেকে অন্য সিলিন্ডারে ভরা) করার একটি অবৈধ স্টেশনে অভিযান চালান চট্টগ্রাম জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট ও পটিয়া উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ফাহমিদা আফরোজ।

অবৈধ প্রতিষ্ঠানটির মালিক শাহাদাত হোসেন টিপু।

পরে অবৈধ এলপি গ্যাস সিলিন্ডার মজুদ, বিপজ্জনক ভাবে ক্রস ফিলিং এবং বৈধ কাগজপত্র না থাকায় প্রতিষ্ঠানটিকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়।

উল্লেখ্য এই অবৈধ ক্রস ফিলিং করে গ্যাস সিলিন্ডার থেকে গ্যাস চুরি করে অন্য সিলিন্ডারে ঢুকিয়ে বিক্রি করা হয়। এতে ক্রেতা বা ভোক্তাকে ওজনে কম দিয়ে লাভবান হয় এই অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট।

পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় সরকারি-বেসরকারি বিপণন প্রতিষ্ঠানগুলো।

পটিয়ার আলমদার পাড়া, মনসা, হুলাইন, শান্তির হাট, কুসুম পুরা এবং পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় বেশ কয়েকটি দোকান ও কারখানায় এলপি গ্যাসের ভরা সিলিন্ডার থেকে খালি সিলিন্ডারে কনভার্টার ব্যবহার করে ক্রস ফিলিং করা হয়।
এ ক্ষেত্রে সরকারি-বেসরকারি কম্পানির সিলিন্ডার ব্যবহার করা হচ্ছে।

ফলে অধিক দামে পরিমাণে কম গ্যাস কিনতে হচ্ছে ক্রেতাদের। একই সঙ্গে যেকোনো মুহূর্তে বিস্ফোরণের ঝুঁকিতেও থাকতে হচ্ছে তাদের।

পটিয়ার খরনা এলাকায় গতকাল অবৈধ ফিলিং কারখানায় গিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট ফাহমিদা আফরোজ দেখতে পান বিশেষভাবে তৈরি কনভার্টার ব্যবহার করে শ্রমিকরা দুটি ভরা সিলিন্ডার থেকে খালি একটি সিলিন্ডারে গ্যাস ভরছে। এভাবে প্রতিটি ভরা সিলিন্ডার থেকে দুই থেকে তিন কেজি পরিমাণ গ্যাস খালি সিলিন্ডারে স্থানান্তর করা হচ্ছে।

পরে কারখানা থেকে ক্রস ফিলিং হওয়া সিলিন্ডারগুলো বাজারজাত করা হয় মার্কেট প্রাইস থেকে ৫০/১০০ টাকা কম দামে। গ্রাহক কিছুটা কম মূল্যে পান বলে তারা হুমড়ি খেয়ে এগুলো কিনে নিজের অজান্তেই ঠকেন।

পটিয়া উপজেলায় গ্যাসের সিলিন্ডারে ক্রস ফিলিং করে অবৈধভাবে এলপি গ্যাস বাজারজাত করে আসছে সংঘবদ্ধ একটি চক্র।

খরনায় গ্যাস ক্রস ফিলিং করে বাজারজাতকরণের অভিযোগ রয়েছে যার বিরুদ্ধে তার নাম শাহাদাত হোসেন টিপু।

নামি-দামি কম্পানির সিলিন্ডার ছাড়াও তাঁর কাছে স্থানীয়ভাবে তৈরি করা সিলিন্ডার রয়েছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
তারা প্রশাসনের অভিযানে সন্তোষ প্রকাশ করে অভিযান অব্যহত রাখার দাবি জানিয়েছেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট ফাহমিদা আফরোজ জানিয়েছেন জনস্বার্থে তাদের অভিযান অব্যহত থাকবে।

Related Articles