বিজয়ী হলে রাজনৈতিক সংঘাত ও প্রতিহিংসামুক্ত পটিয়া গড়ে তুলবো- গণসংযোগকালে এম এ মতিন

বিজয়ী হলে রাজনৈতিক সংঘাত ও প্রতিহিংসামুক্ত পটিয়া গড়ে তুলবো- গণসংযোগকালে এম এ মতিন

চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া)আসন থেকে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত ও দলের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান মাওলানা এম.এ মতিন এর মোমবাতি প্রতীকের সমর্থনে আজ ১ জানুয়ারি সোমবার দিনব্যাপী পটিয়ার বিভিন্নস্থানে ব্যাপক গণসংযোগ করা হয়।

ভাটিখাইন ইউনিয়নের হযরত মির্জা আলী লেদু শাহ মাদরাসা সংলগ্ন এলাকা, করল, কেন্দ্রেীয় জামে মসজিদ এলাকা, ভাটিখাইন বাজার উত্তর ছনহরা, দক্ষিণ ছনহরা, আলমদার পাড়া, টেম্পু ষ্ট্যাশন, চাটরা, মুরালী ডেঙ্গা, মঠপাড়া, গুয়াতলী সহ ভাটিখাইন ও ছনহরা ইউনিয়ন এর বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ ও পথ সভা করেন এম.এ মতিন।

পথসভায় তিনি বলেন, পটিয়ার রাজনীতি আজ কলুষিত হয়ে পড়েছে। কিছু দলের রাজনীতিবিদরা পরস্পরকে ঘায়েল করে বক্তব্য দিয়ে নির্বাচনী পরিবেশকে উত্তপ্ত করে তুলছে। প্রতিপক্ষের নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করা কিংবা কারো ওপর হামলা করা নির্বাচনী আচরণ বিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। ইসলামী ফ্রন্ট পটিয়ায় সংঘাতের রাজনীতি দেখতে চায় না।

আমি পটিয়াবাসীর রায়ে এম.পি নির্বাচিত হলে সংঘাত ও প্রতিহিংসামুক্ত পটিয়া গড়ে তুলবো। রাজনৈতিক সহাবস্থান ও সম্প্রীতির উপর বিশেষ জোর দেয়াই আমার নির্বাচনী ওয়াদা। তিনি আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে দলে দলে ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে মোমবাতির পক্ষে ব্যাল্ট বিপ্লব ঘটাতে পটিয়াবাসীর প্রতি আহবান জানান।

গণসংযোগকালে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ফ্রন্টের প্রেসিডিয়াম সদস্য এম. সোলায়মান ফরিদ, পটিয়া উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান পীরজাদা মাওলানা ছৈয়্যদ এয়ার মুহাম্মদ পেয়ারু, যুবসেনার কেন্দ্রীয় নেতা ইব্রাহীম খলীল, মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম, আমান উল্লাহ আমান, পটিয়া উপজেলা ইসলামী ফ্রন্ট নেতা মাওলানা মুহাম্মদ মহিউদ্দিন কাদেরী, ছাত্রনেতা মুহাম্মদ নূর রায়হান চৌধুরী, এম নাজমুল হক চৌধুরী, যুবনেতা মুহাম্মদ বোরহান উদ্দীন, যুবনেতা মুহাম্মদ জমির উদ্দিন, ছাত্রনেতা মুহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত, মুহাম্মদ ফরমান, মুহাম্মদ জুনাইদুল ইসলাম, আজাদ হোসেন রানা, মুহাম্মদ আব্দুল খালেক, মুহাম্মদ হাসান মুরাদ, মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন আলমদার, আবু সুফিয়ান আবেদী,মুহাম্মদ জয়নাল প্রমুখ।

Related Articles