২ চোর আটক ; পটিয়ায় গরু চুরি করে কেউ পার পাবেনা -ওসি জসিম উদ্দিন

২ চোর আটক ; পটিয়ায় গরু চুরি করে কেউ পার পাবেনা -ওসি জসিম উদ্দিন

পটিয়া (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের পটিয়ায় গরু চোর চক্রের দুই সদস্যকে আটকের পর তাদের দেয়া জবানবন্দীতে আটক হয়েছে হত্যা মামলার আসামী।

তারা হলেন, খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ি উপজেলার জুলফু মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ সেলিম (৪৫) ও স›দ্বীপ উপজেলার হারাখাল গ্রামের মো. বাবুলের পুত্র ওমর ফারুক (২৫)। বুধবার সকালে পটিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট তাররাহুম আহমেদের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে দিয়েছেন।

আদালতে তারা দুইজন চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন। গত দুই মাসে পটিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে পুলিশ ২১জন গরু চোরকে গ্রেফতার করেছেন। এর মধ্যে পুলিশ ১৮টি গরু ও ১টি ছাগল উদ্ধার করেন। ২০২৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর উপজেলার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নে একদল অস্ত্রধারী গরু চোর সিন্ডিকেট চুরি করতে যায়।

কিভাবে গরু চুরি করা যায় তা দিনে অনুসন্ধান করে পরিকল্পনা করে। রাতে অস্ত্রধারী সংঘবদ্ধ চোরের দল উপজেলার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের ঝুলন বৈদ্যের গোয়াল ঘর থেকে গরু চুরির জন্য চোরের দল হানা দেয়। ওই সময় গরু চুরির কাজে বাঁধা দেওয়ায় চোরের দল গরুর মালিক ঝুলনকে অস্ত্রেরমুখে জিম্মি করে এক পর্যায়ে লাঠিদিয়ে গুতা দিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। পরবর্তীতে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় পটিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা হয়।

পটিয়া থানার ওসি জসীম উদ্দিন জানিয়েছেন, তিনি যোগদানের আগে থেকেই পটিয়ায় গরু চুরির ঘটনা ছিল। গরু চোরের একাধিক সিন্ডিকেট রয়েছে।

তাদেরকে গ্রেফতার করতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযানও করা হয়েছে। গরু চুরি ও হত্যা মামলার তদন্ত করতে গেলে চোর চক্রের তথ্য মিলে। ইতোমধ্যে দুই আসামী আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। পটিয়ায় গরু চুরি রোধে নজরদারি অব্যহত আছে। গরু চুরি করে কেউ পার পাবে না। পুলিশ এক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহন করেছে। # ৬.৩.২৪

 

Related Articles